বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৫:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল রোগীদের সাথে ঈদের আনন্দ উপভোগ করলেন পৌর মেয়র সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে লক্ষ্মীপুরে ১১ গ্রামে ঈদুল আযহা উদযাপন লক্ষ্মীপুর ৪ রামগতি-কমলনগরের রাজনীতিক নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন! ছাত্রলীগ নেতা সজীব হত্যার আসামিদের গ্রেপ্তারের দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ কমলনগরে লরেন্স ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুল খালেক লক্ষ্মীপুরে ট্রাকচাপায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত চর রমনী ইউনিয়ন ব্যবসায়ীর ২ লক্ষ টাকা ছিনতাই এর অভিযোগ যুবলীগ নেতা কামরুল সরকারগংদের বিরুদ্ধে  ঋণের বেড়াজালে পড়ে কমলনগরে ব্যবসায়ির আত্মহত্যা কমলনগরে স্হানীয় সম্পদ আহরণ-বাজেট বিষয়ক প্রশিক্ষণসভা লক্ষ্মীপুর পৌরসভায় ভিজিএফএর চাল পেল ৫ হাজার অসহায় পরিবার

চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতা, অবরুদ্ধ এতিম পরিবার

সংবাদ দাতার নাম
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪৮ বার পড়া হয়েছে
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে ইট ও ত্রিপল দিয়ে চলাচলের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় এক এতিম পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। সদর উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের পদ্মপুকুর পাড় বাড়িতে এ প্রতিবন্ধকতার ঘটনা ঘটেছে।
ওই বাড়ির লোকজনের অভিযোগ, প্রায় ৩৫ বছর ধরে তারা সাড়ে ৪ ফুটের একটি পথ ব্যবহার করে আসছেন।  এক বছর আগে প্রবাস ফেরত হারুনুর রশিদ ও তার ভাই আমির হোসেন বাচ্চু ওই পথটি বন্ধ করে দেয়। তখন জানতে চাইলে তারা অন্যদেরকেও মামলা-হামলার হুমকি দেয়।
জানা গেছে, পদ্মপুকুরপাড় বাড়ির মৃত মোখলেছুর রহমানের ৬ ছেলে। পর্যায়ক্রমে সকলেই পৃথক বসতঘর নির্মাণ করেন। তারাসহ ওই বাড়ির অন্যান্য পরিবারগুলোর জন্য পূর্বপুরুষের সময়কাল থেকে একটি পথ ছিল। এটি যৌথ পথ হিসেবে সবাই ব্যবহার করতো। মোখলেছুর রহমানের দ্বিতীয় ছেলে নাছির উদ্দিন মারা যান। নাছিরের সংসারে স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। সম্প্রতি তার ছেলে রবিন বিদেশ যায়। রবিন ও তার মা দুরবস্থার মধ্য দিয়ে কোনভাবে  বাড়িতে বসতের জন্য একটি পাকাভবন নির্মাণ করেন। ওই ভবনটি নির্মাণ নিয়ে রবিনের চাচা হারুন ও বাচ্চু বাধা দেয়। অসহায়  রবিন বিপদগ্রস্তের মধ্যে দিয়ে  যেমন তেমন করে ভবনটি নির্মাণ কাজ করেন। এরমধ্যেই জমি পাওনা দাবি করে হারুন ও বাচ্চু প্রতিহিংসাবসত তাদের সদর দরজার সামনের পথে ইট ও ত্রিপল দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এনিয়ে রবিন আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আদালত সদর উপজেলা সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়। সহকারী কমিশনার ঘটনাটি তদন্তের জন্য দত্তপাড়া ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেন। পরবর্তীতে ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা সরেজমিনে তদন্ত করেন। কিন্তু তিনি কোনভাবে প্রভাবিত বা কারো কথায় প্ররোচিত হয়ে আদালতে ভুল একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন। সেই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন। এতে মৃত নাছির উদ্দিনের পরিবার নিরুপায় হয়ে সাংবাদিকদের স্বরণাপন্ন হয়। গণমাধ্যম কর্মীরা ঘটনাস্থল গিয়ে দেখতে পায় পথটি সম্পুর্ণ পৃথক রয়েছে। পরিবারটির ঘর থেকে বের হওয়ার পথটি হারুন ও বাচ্চু জোরপূর্বক বন্ধ করে দিয়েছে।
ভূক্তভোগী রবিনের বোন ফারজানা আক্তার বলেন, পথ বন্ধ করে দেওয়ায় আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি। বাসা থেকে বের হওয়ার কোন পথ নেই। পেছনের দরজা ব্যবহার করে অন্যের জমি দিয়ে কোনভাবে চলাচল করতে হচ্ছে। পথটি সবার জন্য উম্মুক্ত ছিল। হারুন ও বাচ্চু চাচা জোরপূর্বক পথটি বন্ধ করে দিয়েছে। পথটি উম্মুক্ত করে আমাদের চলাচল স্বাভাবিক করতে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ চাই।
অভিযুক্ত হারুনুর রশিদ ও আমির হোসেন বাচ্চু জানান, তারা পথের ওপর জমি পাওনা রয়েছে। এজন্যই তারা পথ বন্ধ করে দিয়েছে।
তবে মৃত নাছির উদ্দিনের বড় ভাই গিয়াস উদ্দিন, ছোট ভাই শহীদ উদ্দিন ও সালাহউদ্দিন মানিক জানায়, সাড়ে ৪ ফুটে পথটি প্রায় ৩০ বছর ধরে বাড়ির সবাই ব্যবহার করে আসছে। সবার সম্মতিক্রমেই পথট রাখা হয়। কিন্তু বাচ্চু ও হারুন পথটি বন্ধ করে দিয়ে অমানবিক কান্ড ঘটিয়েছেন। বাড়ি থেকে সবার বের হওয়ার পথ রয়েছে। এখন শুধু রবিনরাই পথ পাচ্ছে না। তারা অবরুদ্ধ হয়ে রয়েছে।
ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আনোয়ারা আক্তার বলেন, উপজেলা ভূমি অফিস থেকে আমার কাছে তথ্য চাওয়া হয়েছে- চলাচলের পথটি রেকর্ডভূক্ত কি না। আমি তদন্ত করে প্রতিবেদন দিয়েছি। সেখানে তালিকাভূক্ত পথ নেই। ‘তবে বাড়ির মানুষ দীর্ঘদিন ধরে পথটি ব্যবহার করেছে। এটি সমঝোতার বিষয়। পারিবারিকভাবে বিষয়টি সমঝোতা করে পথটি উম্মুক্ত করা সম্ভব’।     জান্নাতুল ফেরদৌস নায়ন

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৩ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৪০ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৫২ অপরাহ্ণ
  • ২০:১৮ অপরাহ্ণ
  • ৫:১১ পূর্বাহ্ণ
কপিরাইট © ২০২৩সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
themesba-lates1749691102